ভিলিয়ার্স ঝড়ে উড়ে গেল রাজস্থান

আবারও জ্বলে উঠলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। তাঁর এমন বিধ্বংসী রূপই দেখতে চান আইপিএল সমর্থকরা। ডি ভিলিয়ার্সের এই বিধ্বংসী রূপের সামনেই উড়ে গেল স্টিভেন স্মিথের দল রাজস্থান রয়্যালস।

আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালস বোলারদের উড়িয়ে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে দাপুটে জয় এনে দিয়েছেন ডি ভিলিয়ার্স। স্টিভেন স্মিথদের দেওয়া ১৭৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানের ঝড়ো ফিফটিতে ২ বল হাতে রেখে ৭ উইকেটের জয় পেয়েছে ব্যাঙ্গালুরু।

শনিবার (১৭ অক্টোবর) দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা দারুণ করেন রাজস্থানের রবিন উথাপ্পা ও বেন স্টোকস। দুজনের ওপেনিং জুটিতে আসে ৫০ রান। স্টোকসকে (১৫) সাজঘরে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন ক্রিস মরিস।  এরপর দলীয় ৬৯ রানে উথাপ্পা (৪২) ও সঞ্জু স্যামসনকে (৯) হারিয়ে বিপদে পড়ে রাজস্থান।

কঠিন মুহুর্তে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক স্মিথ। অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটাসম্যান ৩৬ বলে করেন ৫৭ রান। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ৬ চার ও ১ ছক্কায়। এছাড়া জস বাটলারের ২৪, জোফরা আর্চারের ২ এবং অপরাজিত থাকা ব্যাটসম্যান রাহুল তেওয়াতিয়ার ১৯ রানের ওপর ভর করে ৬ উইকেটে ১৭৭ রান করে রাজস্থান।

ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে ৪ ওভারে ২৬ রান দিয়ে মরিস একাই নেন ৪ উইকেট। বাকি উইকেট ২টি নিয়েছেন যুজুবেন্দ্র চাহাল।

জবাব দিতে নেমে ব্যক্তিগত ১৪ রানে ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ সাজঘরে ফিরলেও আরেক ওপেনার দেবদূত পাডিক্কালকে (৩৫) নিয়ে এগোতে থাকেন বিরাট কোহলি। ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়ক যখন সাজঘরে ফিরছেন তখন দলের রান ১০২। কোহলির ৩২ বলে ৪৩ রানের ইনিংসটি সাজানো ছিল ১ চার ও ২ ছক্কায়।

এরপরও অবশ্য জয়ের জন্য চিন্তা করতে হয়নি তাকে। ব্যাটিংয়ে নেমে ঝড় তুলেন ডি ভিলিয়ার্স। শেষ পযন্তৃ অপরাজিত থেকে ২২ বলে ৫৫ রান করেন তিনি। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ১ চার ও ৬ ছক্কায়। ডি ভিলিয়ার্সকে সঙ্গ দেন গুরকিরাত সিং মান (১৯)।   ১৯.৪ বলে ৩ উইকেটে হারিয়ে ১৭৯ রান করে জয় তুলে নেয় ব্যাঙ্গালুরু।

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *