এক নজরে আইপিএলে কোন তারকা কোন দলে

আইপিএলের ১৩তম আসর আজ শুরু হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই টুর্নামেন্টটি বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে। শুধু তাই নয়, অর্থ, তারকা কিংবা জৌলুস যাই বলি না কেন, সবদিক থেকেই আইপিএল অন্যতম। এই জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টটিতে খেলতে মুখিয়ে থাকেন ক্রিকেট বিশ্বের জনপ্রিয় ক্রিকেটাররা। কেননা অন্য কোন টুর্নামেন্টের চেয়ে এখানে পারিশ্রমিক বহুগুণ বেশি।

আইপিএলের ৮টি দলে কোন তারকা কোন দলে খেলছে, তা জেনে নেওয়া যাক…

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স : রোহিত শর্মা (ভারত), কুইন্টনস ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা), কিয়েরন পোলার্ড (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), ট্রেন্ট বোল্ট (নিউজিল্যান্ড), জাসপ্রিত বুমরাহ (ভারত), মিচেল ম্যাকক্লেনাহান (নিউজিল্যান্ড) ।

চেন্নাই সুপার কিংস : মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত), ডোয়াইন ব্রাভো (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), ডু প্লেসিস (দক্ষিণ আফ্রিকা), স্যাম ক্যারেন (ইংল্যান্ড), শেন ওয়াটসন (অস্ট্রেলিয়া), জশ হ্যাজেলউড (অস্ট্রেলিয়া)।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ : ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া), জনি বেয়ারস্টো (ইংল্যান্ড), উইলিয়ামসন (নিউজিল্যান্ড), মিচেল মার্শ (অস্ট্রেলিয়া), রশিদ খান (আফগানিস্তান), ভুবেনশ্বর কুমার (ভারত)।

কলকাতা নাইট রাইডার্স : দিনেশ কার্তিক (ভারত), টমাস ব্যান্টন (ইংল্যান্ড), ইয়ন মরগান (ইংল্যান্ড), সুনিল নারিন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), আন্দ্রে রাসেল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), লকি ফার্গুসন (নিউজিল্যান্ড)।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব: কেএল রাহুল (ভারত), ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (অস্ট্রেলিয়া), নিকোলাস পুরান (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), কটরেল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), মোহাম্মদ শামি (ভারত)।

দিল্লি ক্যাপিটালস : শেখর ধাওয়ান (ভারত), জেসন রয় (ইংল্যান্ড), ক্রিস ওকস (ইংল্যান্ড), মার্কাস স্টয়নিস (অস্ট্রেলিয়া), কাগিসো রাবাদা (দক্ষিণ আফ্রিকা), শ্রেয়াস আইয়ার (ভারত)।

রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু : বিরাট কোহলি (ভারত), এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা), অ্যারন ফিঞ্চ (অস্ট্রেলিয়া), মঈন আলী (ইংল্যান্ড), অ্যাডাম জাম্পা (অস্ট্রেলিয়া), ডেল স্টেইন (দক্ষিণ আফ্রিকা)।

রাজস্থান রয়্যালস : স্টিভেন স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া), জশ বাটলার (ইংল্যান্ড), ডেভিড মিলার (দক্ষিণ আফ্রিকা), বেন স্টোকস (ইংল্যান্ড), জোফরা আর্চার (ইংল্যান্ড), সঞ্জু স্যামসান (ভারত)।

আইপিএলের এই মেগা আসরে ধারাভাষ্যে দেখা যাবে বিভিন্ন ভাষার এক্সপার্টদের। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ইংরেজির জন্য। এই ভাষায় ধারাভাষ্য দেবেন ১৮ জন। হিন্দিতে রাখা হয়েছে আটজনকে। এছাড়া তামিল অঞ্চলের দর্শকদের কথা মাথায় রেখে ১০ জন ধারাভাষ্যকার ঠিক করা হয়েছে। থাকবেন তেলেগু ধারাভাষ্যকারও। সে তালিকায় আছেন আরও আটজন।

জানা যায়, আইপিএলকে সবার কাছে আরও বেশি জনপ্রিয় করতে তুলতেই এমন উদ্যোগ নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। যাতে বিশ্বের সিংহভাগ মানুষ আইপিএলের খেলাগুলো উপভোগ করতে পারেন।

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *