ইতিহাসের পাতায় আজকের দিন

সোমবার ৩১শে আগস্ট ২০২০ ইং, ১১ই মুহাররম ১৪৪২ হিজরী, ১৬ই ভাদ্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল)। গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ২৪৩তম (অধিবর্ষে ২৪৪তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ১২২ দিন বাকি রয়েছে। ইতিহাসের পাতায় আজকের এই দিনে জন্ম ও মৃত্যুবরণ করেছেন অনেক বিখ্যাত ও কুখ্যাত ব্যক্তি। তারা সৃষ্টি করেছেন নানান ঐতিহাসিক ঘটনা। ইতিহাসের পাতায় স্মরণীয় হয়ে রয়েছে। দেখে নেওয়া যাক ইতিহাসের পাতায় আজকের দিনটি কেমন ছিল।

ইতিহাস

১৮৪৮ – সংবাদপত্রে প্রথমবারের মত আবহাওয়া বার্তা ছাপা শুরু করে।

১৮৫৮ – ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির হাত থেকে ব্রিটিশ সরকার ভারতের শাসনভার গ্রহণ করে।

১৯০৫ – বঙ্গভঙ্গ বিল পাস হয়।

১৯০৭ – ইংল্যান্ড ও রাশিয়ার মধ্যে ইঙ্গ-রুশ মৈত্রী চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

১৯৫৭ – মালয়েশিয়া স্বাধীনতা লাভ করে।

১৯৫৯ – কলকাতায় খাদ্যের দাবিতে কৃষক মিছিলে ভারতের কংগ্রেস সরকারের গুলি চালনায় ৮০ জন নিহত হয়।

১৯৬২ – ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো বৃটিশ উপনিবেশবাদীদের কবল থেকে মুক্ত হয়ে স্বাধীনতা লাভ করে।

১৯৬৩ – ক্রেমলিন ও হোয়াইট হাউসের মধ্যে হট লাইন প্রতিষ্ঠা করা হয়।

১৯৬৮ – ভারতে তৈরী উপগ্রহ ‘রোহিনী’ আকাশপথে যাত্রা করে।

১৯৬৮ – ইরানের খোরাশানে মারাত্মক ভূমিকম্পে ১৮ হাজার নিহত হয়।

১৯৭১ – সঙ্গীতশিল্পী আলতাফ মাহমুদ পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর হাতে নিহত হন।

১৯৭৫ – গণচীন বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করে।

১৯৯১ – সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রজাতন্ত্র কিরঘিজিস্তান স্বাধীনতা লাভ করে।

২০০৫ – ইরাকের কাজেমাইন শহরে এক শোকানুষ্ঠানে প্রায় এক হাজার ইরাকী মর্মান্তিকভাবে নিহত হয়।

জন্ম

০০১২ – কালিগুলা, তিনি ছিলেন রোমান সম্রাট।

০১৬১ – কোমোডুস, তিনি ছিলেন রোমান সম্রাট।

১৮২১ – হারমান ভন হেল্মহোল্টয, তিনি ছিলেন জার্মান চিকিৎসক ও পদার্থবিজ্ঞানী।

১৯১৩ – বার্নার্ড লভেল্, তিনি ছিলেন ইংরেজ পদার্থবিজ্ঞানী ও জ্যোতির্বিজ্ঞানী।

১৯৩৬ – ভ্লাদিমির অরলভ, তিনি ছিলেন রাশিয়ান লেখক।

১৮৪৩ – গেয়র্গ ভন হেরটলিং, তিনি ছিলেন জার্মান শিক্ষাবিদ, রাজনীতিবিদ ও ৭ম চ্যান্সেলর।

১৮৭৯ – আল্‌মা মাহ্‌লের, তিনি ছিলেন অস্ট্রিয়ান বংশোদ্ভূত আমেরিকান সুরকার ও চিত্রশিল্পী।

১৮৮৮ – কানাইলাল দত্ত, তিনি ছিলেন ভারতীয় উপমহাদেশের ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন অন্যতম ব্যক্তিত্ব এবং অগ্নিযুগের বিপ্লবী।

১৮৯৭ – ফ্রেডরিক মার্চ, তিনি ছিলেন আমেরিকান লেফটেন্যান্ট, অভিনেতা ও গায়ক।

১৯০৭ – রামোন ডেল ফিরো ম্যাগসেসে, তিনি ছিলেন ফিলিপিনো অধিনায়ক, প্রকৌশলী, রাজনীতিবিদ ও ৭ম সভাপতি।

১৯১৯ – অমৃতা প্রীতম, তিনি ছিলেন ভারতীয় কবি ও লেখক।

১৯২৮ – জেমস হ্যারিসন কোবার্ন, তিনি ছিলেন আমেরিকান অভিনেতা।

১৯৪৪ – ক্লাইভ লয়েড, তিনি ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ক্রিকেটার।

১৯৪৫ – ভ্যান মরিসন, তিনি ছিলেন উত্তর আইরিশ গায়ক ও গীতিকার।

১৯৪৯ – এইচ ডেভিড পলিতজার, তিনি নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আমেরিকান তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানী।

১৯৪৯ – রিচার্ড গিয়ার, তিনি আমেরিকান অভিনেতা ও প্রযোজক।

১৯৬০ – হাসান নাসরুল্লাহ, তিনি লেবাননের রাজনৈতিক ও আধাসামরিক প্রতিষ্ঠান, হিজবুল্লাহর তৃতীয় মহাসচিব।

১৯৬৩ – ঋতুপর্ণ ঘোষ, তিনি ছিলেন বিখ্যাত ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্র নির্মাতা।

১৯৬৯ – জাভাগাল শ্রীনাথ, তিনি সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার।

১৯৭০ – নিকোলা গ্রুয়েভস্কি, তিনি ম্যাসাডোনিয়া অর্থনীতিবিদ, রাজনীতিবিদ ও ৬ষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী।

১৯৭৭ – জেফ হার্ডি, তিনি আমেরিকান কুস্তিগির ও গায়ক।

১৯৮২ – পেপে রেইনা, তিনি স্প্যানিশ ফুটবল খেলোয়াড়।

১৯৮৫ – রোলানদো জর্জ পিরেস দা ফনসেকা, তিনি পর্তুগিজ ফুটবলার।

মৃত্যু

১৪২২ – পঞ্চম হেনরি, তিনি ছিলেন ইংল্যান্ডের রাজা।

১৬৮৮ – জন বুনয়ান, তিনি ছিলেন ইংরেজ প্রচারক, ধর্মতত্ত্ববিদ ও লেখক।

১৭৯৫ – ফ্রাসোয়া-আঁদ্রে ডানিকান ফিলিডোর, তিনি ছিলেন ফরাসি বংশোদ্ভূত ইংরেজ দাবা খেলোয়াড় ও সুরকার।

১৮১১ – লুই আন্তনিও ডি বোউগাইনভিলে, তিনি ছিলেন ফরাসি নৌসেনাপতি ও এক্সপ্লোরার।

১৮১৪ – আর্থার ফিলিপ, তিনি ছিলেন ইংরেজ এডমিরাল, রাজনীতিবিদ ও নিউ সাউথ ওয়েল্স-এর ১ম গভর্নর।

১৮৬৪ – ফের্দিনান্দ লাসালে, তিনি ছিলেন জার্মান বিচারক, দার্শনিক ও সমাজতান্ত্রিক রাজনৈতিক কর্মী।

১৮৬৭ – শার্ল বোদলেয়ার, তিনি ছিলেন ফরাসী কবি।

১৯২০ – উইলহেম উন্ট, জার্মান চিকিৎসক, তিনি ছিলেন মনোবৈজ্ঞানিক ও দার্শনিক।

১৯৪১ – মারিনা টসভেটাভা, তিনি ছিলেন রাশিয়ান কবি ও লেখক।

১৯৬৩ – জর্জ ব্রাকুয়ে, তিনি ছিলেন ফরাসি চিত্রশিল্পী ও ভাস্কর।

১৯৭৩ – জন ফোর্ড, তিনি ছিলেন আমেরিকান অভিনেতা, পরিচালক, প্রযোজক ও চিত্রনাট্যকার।

১৯৮৫ – ফ্র্যাঙ্ক ম্যাকফারলেন বার্নেট, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী অস্ট্রেলিয়ান ভাইরাসবিদ।

১৯৮৬ – উরহো কেকোনেন, তিনি ছিলেন ফিনিশ সাংবাদিক, আইনজীবী, রাজনীতিবিদ ও ৮ম সভাপতি।

১৯৯৭ – প্রিন্সেস ডায়ানা, তিনি ছিলেন যুক্তরাজ্যের প্রাক্তন যুবরাজ্ঞী।

২০০২ – জর্জ পোর্টার, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ইংরেজ রসায়নবিদ।

২০০৫ – জোসেফ রটব্লাট, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী পোলিশ বংশোদ্ভূত ইংরেজ পদার্থবিদ।

২০০৮ – কেন ক্যাম্পবেল, তিনি ছিলেন ইংরেজ লেখক, অভিনেতা, পরিচালক ও কৌতুকাভিনেতা।

২০১৩ – ডেভিড প্যারাডাইন ফ্রস্ট, তিনি ছিলেন ইংরেজ রসায়নবিদ ও শিক্ষাবিদ।

দিবস

মালয়শিয়ার স্বাধীনতা দিবস

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *