পাঁচ মাস পর কারাগার থেকে মুক্ত হলেন রোনালদিনহো

ভুয়া কাগজপত্র নিয়ে প্যারাগুয়েতে প্রবেশের অপরাধে ৩২ দিন কারাবাস ও পরে প্রায় সাড়ে চার মাস গৃহবন্দী অবস্থায় রাখা হয়েছিল রোনালদিনহোকে। পাঁচ মাসের বেশি সময় পর নিজ দেশ ব্রাজিলে ফিরে যাওয়ার অনুমতি পেলেন দেশটির কিংবদন্তি ফুটবলার রোনালদিনহো গাউচো।

গত মার্চের ৬ তারিখ একটি চ্যারিটি ইভেন্টে যোগ দেয়ার জন্য প্যারাগুয়ে গিয়েছিলেন রোনালদিনহো এবং তার ভাই রবার্তো অ্যাসিস। কিন্তু প্যারাগুয়ের বিমানবন্দরে দেখা যায়, তাদের সঙ্গে থাকা পাসপোর্টসহ অন্যান্য কাগজপত্র নকল। যে কারণে সঙ্গে সঙ্গে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয় রোনালদিনহো ও তার ভাইকে।

পরে আদালতের রায়ে ছয় মাসের শাস্তি হয় রোনালদিনহো ও রবার্তোর। শুরুর দিকের ৩২ দিন কারাগারেই ছিলেন রোনালদিনহো। সেখানেই কেটেছে তার ৪০তম জন্মদিন। তবে ৮ এপ্রিল প্রায় ১৩ লাখ পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৪ কোটি টাকার কাছাকাছি) খরচা করে কারামুক্ত হন দুই ভাই এবং বন্দী হন প্যারাগুয়ের একটি বিলাসবহুল হোটেলে।

Ronaldinho

ছয় মাসের বাকি থাকা দিনগুলো হোটেলে বন্দী অবস্থায় কাটানোর পর অবশেষে ব্রাজিলে যাওয়ার জন্য মুক্ত হলেন রোনালদিনহো। তবে এবারও তাদের গুনতে হয়েছে প্রায় দেড় লাখ পাউন্ড বা দেড় কোটি টাকার বেশি অর্থ। রোনালদিনহো পুরোপুরি দায়মুক্ত হলেও, তার ভাই রবার্তোর প্যারাগুয়েতে ক্রিমিনাল রেকর্ড নথিভুক্ত থাকবে।

শুধু তাই নয়, আগামী ২৪ মাস ব্রাজিল ছেড়ে কোথাও যেতে পারবেন না রবার্তো এবং এ সময়ের মধ্যে নিয়মিত রিও ডি জেনিরোতে হাজিরাও দিতে হবে তাকে। রোনালদিনহোর ক্ষেত্রে নিয়মটা হলো এখন থেকে ব্রাজিল ত্যাগের সময় তাকে জানিয়ে যেতে হবে ঠিক কতদিনের জন্য যাচ্ছেন তিনি।

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *