রিয়ালকে হারিয়ে শেষ আটে ম্যানসিটি

ঘরের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেল ম্যানচেস্টার সিটি। শুক্রবার রাতে শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে ২-১ গোলে জিতেছে পেপ গার্দিওলার দল। প্রথম লেগেও একই ব্যবধানে জিতেছিল সিটিজেনরা।

২০০৯ সালের পর প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন্স লীগের দুই লেগে হারল রিয়াল। সেবার লিভারপুলের কাছে দুই লেগে হেরে শেষ ষোলো থেকে বিদায় নেয় রিয়াল মাদ্রিদ।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে রিয়ালের ফরাসি ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানের দুটি ভুলের মাশুল দেয় জিনেদিন জিদানের দল। নবম মিনিটে সিটিকে প্রথম গোলটা একরকম উপহার দেয় রিয়াল। থিবো কোর্তোয়া লম্বা শট না নিয়ে বাইলাইনের কাছে রাফায়েল ভারানেকে খুঁজে নেন।

ফরাসি ডিফেন্ডারও শট নেননি। তার কালক্ষেপনের সুযোগে দ্রুত ছুটে গিয়ে বল কেড়ে নেন গাব্রিয়েল জেসুস। ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকারের কাছ থেকে বল পেয়ে বাকিটা অনায়াসে সারেন ছন্দে থাকা রাহিম স্টার্লিং। সিটির জার্সিতে এটি ইংলিশ ফরোয়ার্ডের শততম গোল।

২৮তম মিনিটে রিয়ালকে সমতায় ফেরান করিম বেনজেমা। রদ্রিগোর ক্রসে দারুণ হেডে গোল করেন এই ফরাসি স্ট্রাইকার।

প্রথম লেগে লাল কার্ড দেখায় ছিলেন না সার্জিও রামোস। রক্ষণভাগে তাই বাড়তি দায়িত্ব ছিল রাফায়েল ভারানের। তবে ফরাসি ডিফেন্ডারের জন্য রাতটা ছিল দুঃস্বপ্নের মতো। ৬৮ মিনিটে আবারো ভুল করে বসেন ভারানে। মাঝমাঠ থেকে উড়ে আসা বলে ঠিকমতো মাথা ছোঁয়াতে পারেননি। দ্বিতীয়বার দুর্বল হেডে বল দিতে চেয়েছিলেন কোর্তোয়াকে। বল কোর্তোয়ার কাছে পৌঁছানোর আগেই আয়ত্বে নেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস। বল জালে জড়িয়ে সিটির কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেন এই ব্রাজিলিয়িান স্ট্রাইকার।

কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটির প্রতিপক্ষ ফরাসি ক্লাব অলিম্পিক লিঁও।

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *