এক নজরে যুদ্ধবিমান রাফায়ল

ফ্রান্সের কাছ থেকে অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান রাফয়ল কিনছে ভারত, তার প্রথম ব্যাচের পাঁচটি ফাইটার জেট বুধবার বিকেলে উত্তর ভারতের আম্বালা বিমানঘাঁটিতে অবতরণ করেছে। এক একটি রাফাল কিনতে ভারতের খরচ পড়েছে প্রায় দশ কোটি ডলার বলে জানিয়েছে বিবিসি বাংলা।

ভারত দাবি করছে, এই যুদ্ধবিমান বিশেষ করে উত্তর ও পশ্চিম সীমান্তের আকাশযুদ্ধে একটা ‘গেমচেঞ্জারে’র কাজ করবে।

এক নজরে দেখে নেয়া যাক কি আছে যুদ্ধবিমান রাফায়লে

• চতুর্থ প্রজন্মের যুদ্ধবিমান। স্থল, সমুদ্র, আকাশ— সর্বত্র আঘাত করতে পারে।

• ওমনি রোল (যুদ্ধে সব রকম কাজে ব্যবহৃত) যুদ্ধবিমান।

• যে কোনও সময় যুদ্ধের পরিস্থিতি পাল্টে দিতে পারে (গেম চেঞ্জার)।

• দু’টি ইঞ্জিন। পরমাণু অস্ত্র-সহ সব ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র বহনে সক্ষম।

• সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ২২২২ কিলোমিটার।

• ডগফাইটে (আকাশে মুখোমুখি যুদ্ধে) ৫০ হাজার ফুটের বেশি উচ্চতায় উঠতে পারে।

• রয়েছে মাল্টি-ডিরেকশনাল রেডার সিস্টেম, অ্যাডভান্স রেডার ওয়ার্নিং রিসিভার সিস্টেম। শত্রুর বিপদসঙ্কুল রেডিয়ো সিগন্যাল চিহ্নিত করতে সক্ষম।

• শত্রুর আকাশসীমায় না-ঢুকেও লক্ষ্যবস্তুতে আঘাতের ক্ষমতা।

• দৃষ্টিগোচর নয় এমন ১০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যে ‘মাইকা’ এয়ার টু এয়ার ক্ষেপণাস্ত্র আঘাতে সক্ষম।

• আকাশ থেকে ভূমি দূরপাল্লার স্ক্যাল্প ক্ষেপণাস্ত্র মাটিতে রাখা ৩০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যে আঘাত করতে পারে। রয়েছে জাহাজ বিধ্বংসী এএম-৩৯ এক্সোসেট ক্ষেপণাস্ত্রও।

• আকাশ থেকে ভূমি ৭০ কিলোমিটার পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ‘হ্যামার’ বসানো হবে। এক সঙ্গে একাধিক লক্ষ্যে আঘাত হানতে পারবে ৩৩০ কিলোগ্রামের এই ‘হাতুড়ি’। গুঁড়িয়ে দিতে পারবে কংক্রিটের বাঙ্কারও।

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *