চীনের উদ্ভাবিত করোনা ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পরীক্ষা ব্রাজিলে শুরু

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে চীনের উদ্ভাবিত একটি ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত ধাপের পরীক্ষা ব্রাজিলে মঙ্গলবার শুরু হয়েছে। সেখানে স্বেচ্ছাসেবকরা এ ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন। এটি বিশ্বের বর্তমান পরিস্থিতির মোড় ঘুরিয়ে দেবে বলে কর্মকর্তারা আশা করছেন। খবর এএফপি’র।
চীনের বেসরকারি ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সিনোভ্যাত বায়োটেক উদ্ভাবিত এ ভ্যাকসিন হচ্ছে নিয়ন্ত্রক প্রশাসনের অনুমোদনের আগের সর্বশেষ পদক্ষেপ, অর্থাৎ তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে প্রবেশ করা বা মানব দেহে ব্যাপক ভিত্তিক পরীক্ষা শুরু করা বিশ্বে তৃতীয় প্রতিষ্ঠান।
সাও পাওলো ক্লিনিক্যাল হাসপাতালে ভ্যাকসিনটির প্রথম ডোজ গ্রহণ করা ২৭ বছর বয়সী চিকিৎসক বলেন, ‘আমরা একটি নজিরবিহীন ও ঐতিহাসিক সময়ের মধ্যে জীবনযাপন করছি। এ কারণে আমি এ ট্রায়ালের অংশ হতে চেয়েছি।’ তার নাম গোপন রাখা হয়েছে।
ব্রাজিলের ছয়টি রাজ্যের প্রায় ৯ হাজার স্বাস্থ্য কর্মী করোনাভ্যাক নামে পরিচিত এ ভ্যাকসিন গ্রহণ করবেন। এ জরিপের আওতায় আগামী তিন মাসে দুই ডোজ করে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।
সাও পাওলো রাজ্যের গভর্নর জোয়াও ডোরিয়া সোমবার বলেন, ৯০ দিনের মধ্যে এর প্রাথমিক ফলাফল পাওয়া যাবে। এই ট্রায়ালে ব্রাজিলের জনস্বাস্থ্য গবেষণা কেন্দ্র বুটানটান ইনস্টিটিউটের অংশীদার হচ্ছে সিনোভ্যাক।
কর্মকর্তারা জানান, এই ট্রায়ালে ভ্যাকসিনটি নিরাপদ ও কার্যকর প্রমাণ হলে চুক্তির আওতায় এ প্রতিষ্ঠান ১২ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন উৎপাদনের অধিকার পাবে।
বিশ্বে মহামারি করোনাভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রের পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে ব্রাজিল। দেশটিতে সোমবার মৃতের মোট সংখ্যা ৮০ হাজার এবং আক্রান্তের মোট সংখ্যা ২১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।-বাসস
শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *