আরএমপি নিউজ: গতকাল ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের আয়োজনে আরএমপি পুলিশ লাইন্স কনফারেন্স রুমে মহান মুক্তিযুদ্ধের গৌরবময় ও অসামান্য অবদান রাখার জন্য বীর পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। 

 পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বিপিএম  এর সভাপতিত্ব  উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ডিআইজি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওবাইদুল্লাহ, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোঃ সুজায়েত ইসলাম, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) তানভীর হায়দার চৌধুরী ও আরএমপি পুলিশের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ২৭ জন বীর পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা জানানো হয়। জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু হয় এবং বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ থেকে অনেকেই এই মহান মুক্তিযুদ্ধের স্বাধীনতার সংগ্রামের প্রত্যক্ষ ঘটনাবলী স্মৃতিচারণ করেন। পুলিশ কমিশনার তাঁর বক্তব্যে বলেন,এ দেশে স্বাধীনতার জন্য পুলিশের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অবদান অনন্য ও চিরস্মরণীয়। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এগিয়ে চলছে বাংলাদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা। তাঁদের কাছ থেকে নতুন প্রজন্ম সঠিক ইতিহাস জানতে পারবে এবং দেশপ্রেমের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হবে।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের ২৫  মার্চ দিবাগত রাতে (কালো রাত্রি) রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে পাকবাহিনীর আক্রমণের বিপক্ষে বাংলাদেশ পুলিশ প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধ গড়ে তোলে।  মহান মুক্তিযুদ্ধে তৎকালীন রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি শহীদ মামুন মাহমুদ ও রাজশাহী জেলার পুলিশ সুপার শহীদ আব্দুল মজিদসহ রাজশাহী রেঞ্জ কার্যালয় ও রাজশাহী পুলিশের মোট ৮৩ জন সদস্য দেশ মাতৃকার স্বাধীনতার জন্য শাহাদাত বরণ করেন।