আরএমপি নিউজঃ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের মালিকানায় ‘কমিঅবশেষে চুড়ান্ত অনুমোদন পেল পুলিশের স্বপ্নের ব্যাংক ‘‘কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ’’উনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ’ এর চূড়ান্ত অনুমোদন দিল বাংলাদেশ ব্যাংক।

গতকাল সোমবার (২৯ অক্টোবর) বাংলাদেশ ব্যাংকের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভায় নতুন এই বানিজ্যিক ব্যাংকের কার্যক্রম পরিচালনার অনুমোদন দেওয়া হয়। এ ব্যাংকের অনুমোদন দেওয়ার পর দেশে সরকারি-বেসরকারি মিলে ব্যাংকের সংখ্যা দাড়ালো ৫৯ টি ।

উল্লেখ্য, গত মার্চ ২০১৮ মাসে ব্যাংকটির অনুমোদন চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকে আবেদন করে পুলিশ সদর দফতরের কল্যাণ ট্রাস্ট।

জানা গেছে, এই ব্যাংকের মাধ্যমে সারাদেশে পুলিশ সদস্যদের বেতন দেয়া হবে। আপাতত পুলিশ সদস্যরাই হবেন এই ব্যাংকের শেয়ারহোল্ডার।

‘কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ’ এর লভ্যাংশ যাবে পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের অ্যাকাউন্টে। ট্রাস্টের মাধ্যমে ওই টাকা ব্যয় হবে পুলিশ সদস্যদের কল্যাণে। ব্যাংক লাভজনক হলে তিন বছর পর মূলধন যোগানের ওপর প্রত্যেকে নির্ধারিত হারে লভ্যাংশ পাবেন। এ ছাড়া পুলিশ সদস্যদের জমি ক্রয়, বাড়ি নির্মাণ, ব্যবসা উদ্যোগসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে স্বল্প সুদে ঋণ সুবিধা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

ব্যাংকের মাধ্যমে পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের আয় বাড়লে সদস্য ও তাদের পরিবারের চিকিৎসায় আর্থিক সহায়তা বর্তমানের চেয়ে বাড়ানো হবে। সদস্যরা অবসর সুবিধা, তাদের সন্তানের শিক্ষাবৃত্তি, কারিগরি শিক্ষাবৃত্তি, ডে-কেয়ার সেন্টার স্থাপনসহ বিভিন্ন সুবিধা পাবেন এ ব্যাংকের মাধ্যমে। অন্য অনেক সংস্থার মতো পুলিশের নিজস্ব ব্যাংক প্রতিষ্ঠার পর সঠিক ও স্বচ্ছ লেনদেনের কারণে জনগণের মধ্যে পুলিশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে বলে মনে করেন সংশ্নিষ্টরা।