আরএমপি নিউজঃ গতকাল ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং  বেলা ১১:০০ ঘটিকায় শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান চত্ত্বরে (গোরহাঙ্গা মোড়) রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ, ট্রাফিক বিভাগের আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে “ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন প্রসেস” কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন আরএমপি’র পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার, বিপিএম।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন আরএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোঃ সুজায়েত ইসলাম, ডিসি (সদর) তানভীর হয়দার চৌধুরী,  ডিসি (বোয়ালিয়া) মোঃ আমির জাফর, ডিসি (মতিহার) মোঃ সাজিদ হোসেন,ডিসি (পিওএম) মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, ডিসি (শাহমখদুম) মোহাম্মদ হেমায়েতুল ইসলাম, ডিসি (ডিবি) আবু আহাম্মদ আল মামুন,  ডিসি (কাশিয়াডাঙ্গা) মোঃ জয়নুল আবেদীন, ডিসি (ট্রাফিক) অনির্বান চাকমা, ডিসি (এস্টেট, সাপ্লাই এন্ড এমটি) মোঃ সাইফউদ্দীন শাহীন, ডিসি (নগর বিশেষ শাখা) মোঃ আলমগীর হোসেন, এসি (ট্রাফিক) মোঃ ইফতে খায়ের আলম, এসি (বোয়ালিয়া মডেল থানা), মোঃ একরামুল হক সহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তাবৃন্দ, ইউসিবি ব্যাংকের প্রতিনিধিবৃন্দ, গ্রামীণ ফোন লিমিটেডের প্রতিনিধিবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ, পরিবহণ সেক্টরের নেতৃত্ববৃন্দ ও রোভার স্কাউটের সদস্যগণ।

আরএমপি’র ট্রাফিক বিভাগ কর্তৃক দায়েরকৃত মামলার জরিমানা আদায় পদ্ধতি সহজীকরণ, আধুনিকীকরণ ও ডিজিটালাইজড পদ্ধতি প্রবর্তনের লক্ষ্য নিয়ে “ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন প্রসেস” সংক্রান্তে গত ০৯/০৫/২০১৮ ইং তারিখ আরএমপি’র সাথে ইউসিবি (ইউনাইটেড কর্মাশিয়াল ব্যাংক লিমিটেড) ও গ্রামীণ ফোন লিমিটেডের চুক্তিপত্র স্বাক্ষরিত হয়। এর ফলে রাজশাহী মহনগরীর সাধারণ জনগণ সহজে ও দ্রুততার সাথে ট্রাফিক প্রসিকিউশন সংক্রান্তে জরিমানাসমূহ ইলেকট্রনিক্স পদ্ধতিতে পরিশোধ করতে পারবেন ও ট্রাফিক বিভাগের সেবার মান বৃদ্ধি পাবে। এ লক্ষ্যে নগরীর ২৫টি পয়েন্টে ইউসিবি ব্যাংকের ইউ ক্যাশ এজেন্ট পয়েন্ট স্থাপন করা হয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে সড়ক ব্যবস্থাপনার শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে আরএমপি’র পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে নগরের বিভিন্ন পয়েন্টে ট্রাফিক চেকপোস্ট জোরদারকরণ ও আইনগত ব্যবস্থাগ্রহন, জনসাধারনের মাঝে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ, বিভিন্ন পয়েন্টে ব্যানার ও ফেস্টুন লাগানো,  বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে ট্রাফিক পুলিশ নিয়োগ, ট্রাফিক পুলিশ কাজে রোভার স্কাউট সদস্যদের সম্পৃত্তকরণ, জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় মোবাইল কোর্ট কার্যক্রম পরিচালনা এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ট্রাফিক সচেতনতামূলক কর্মশালা  আয়োজন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন “ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন প্রসেস” চালুর ফলে আরএমপি ট্রাফিক বিভাগের কার্যক্রমের গতিশীলতা আরো বৃদ্ধি পাবে এবং জনগণ ডিজিটালাইজড সেবা পাবেন।