স্পোর্টস ডেস্ক:  ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ে কিলিয়ান এমবাপ্পের দারুণ ভূমিকা নিয়ে দ্বিমত করার মতো লোক কমই আছে। তবে এবার ভিন্ন কারণে পাদপ্রদীপের আলোয় তিনি। স্পোর্টস ইলাস্ট্রেটেড ম্যাগাজিনের বরাতে ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, বিশ্বকাপে যেই ৭ ম্যাচ খেলেছেন সেখানে প্রতি ম্যাচে এই ১৯ বছর বয়সী তারকা ২২৫০০ ডলার করে ফি আয় করেছেন।

এছাড়া বিশ্বকাপ জয়ের পর বোনাস হিসেবে পেয়েছেন সাড়ে ৩ লাখ ডলার। এই হিসাবে বিশ্বকাপে মোট ৫ লাখ ডলারেরও বেশি আয় করেছেন তিনি। তবে এই অর্থের এক কানাকড়িও নাকি তিনি নিজে নেবেন না।

এই অর্থ তিনি দান করবেন প্রিমিয়ের্স দ্য কোর্ডে নামে একটি দাতব্য সংস্থায়।

এই সংস্থা হাসপাতালে ভর্তি ও প্রতিবন্ধী শিশুদের খেলাধুলার ব্যবস্থা করে থাকে। ২০১৭ সালে প্রথমবারের মতো এই সংস্থার সঙ্গে সম্পৃক্ত হন তিনি। সংস্থাটির ব্যবস্থাপক সেবাস্তিয়ান রাফিন এক সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে এমবাপ্পেকে অসাধারণ ব্যক্তি হিসেবে অভিহিত করেন।

তিনি এমবাপ্পের দানের বিষয়ে বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে কয়েকদিন আগে এমবাপ্পে ও তার পরিবারের প্রতিনিধি এসে বিষয়টি অবহিত করেন। তবে আমরা প্রথমে সবাইকে জানাতে চাইনি। কারণ কেবল কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেই বোনাস পেতেন তিনি।

তবে আমরা তার এই ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় ভীষণ আপ্লুত হয়েছি। আমরা কখনই আমাদের পৃষ্ঠপোষকদের কাছ থেকে আর্থিক সহযোগিতা চাই না। এমবাপ্পে নিজেই তা দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন।’

প্রসঙ্গত, বিশ্বকাপে মোট ৪ গোল করেছেন এমবাপ্পে। এছাড়া জিতে নিয়েছেন টুর্নামেন্টের সেরা তরুণ খেলোয়াড়ের খেতাব। ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর হয়ে খেলার সুবাদে প্রতি মাসে প্রায় ১৮ লাখ ডলার আয় করেন তিনি।