আরএমপি নিউজঃ পহেলা জুলাই, ২০১৬ গুলশানে হলি আর্টিসান বেকারীতে হামলা বাংলাদেশের টার্নিং পয়েন্ট। যেকোন জঙ্গি হামলা মোকাবেলায় সক্ষম বাংলাদেশ পুলিশ। ঢাকা হলি আর্টিসান বেকারীতে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ব্যক্তিবর্গের পরিজনকে সমবেদনা জ্ঞাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন এমপি।

আজ ২৫ মার্চ বেলা সাড়ে ১২টায় রাজারবাগ বাংলাদেশ পুলিশ অডিটোরিয়ামে হলি আর্টিসান হামলায় নিহতদের পরিজনদের আনুষ্ঠানিক সমবেদনা জ্ঞাপন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

হলি আর্টিসান হামলায় নিহত ব্যক্তিদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, গুলশান হলি আর্টিসান বেকারীতে হামলা বাংলাদেশকে ঘুরে দাঁড়াতে শিখিয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সর্বস্তরের মানুষ জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। জনগণের সহযোগিতায় আমাদের পুলিশ ও র‌্যাব সফলভাবে জঙ্গি দমন করছে। হলি আর্টিসান হামলার পর থেকে আমরা থেমে নেই। জঙ্গিদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এছাড়াও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের অবস্থান বাংলাদেশে হবে না। আমরা তাদের কোনভাবেই মাথাচড়া দিয়ে উঠতে দিবো না।

নিহতদের আমরা ফিরিয়ে দিতে পারবো না। তাদের পরিবার ও পরিজনদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও সমবেদনা জানাচ্ছি।

হলি আর্টিসান হামলায় নিহত চারজনের পরিবারকে সমবেদনা জানানো হয়েছে। নিহত ফারাজ আইয়াজ হোসেন এর পক্ষে তাঁর ভাই জারেফ আইয়াজ হোসেন, ইশরাত জাহান আখন্দ এর পক্ষে তাঁর বড় ভাই আলী হায়াত আখন্দ, অবিন্তা কবির এর পক্ষে তাঁর মামা তানভীর আহম্মেদ ও তারিশি জৈন এর পক্ষে তাঁর চাচা নিরেন সরকার সমবেদনা পত্র গ্রহণ করেন। সকলের হাতে আনুষ্ঠানিক সমবেদনা ও সহমর্মিতা জ্ঞপন করে স্মারক তুলে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এর আগে অনুষ্ঠান শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোঃ শামছুর রহমান। এরপর হলি আর্টিসান বেকারীতে হামলার ঘটনা সম্পর্কে ও মামলার বর্তমান অবস্থান এবং পুলিশের পক্ষ থেকে কি কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তার বর্ণনা দেন সিটিটিসি প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোঃ মনিরুল ইসলাম বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন জাপানী রাষ্ট্রদূত হিরোইয়াসু ইজুমি ও ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান। তিনি নিহত ফারাজ আইয়াজ হোসেন এর নানা।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন, আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার), অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) মোঃ মোখলেছুর রহমান বিপিএম (বার), ডিজি র‌্যাব বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার), ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম (বার), পিপিএম, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনস্ত বিভিন্ন বিভাগের প্রধানসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।  এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন হলি আর্টিসান হামলায় নিহত দেশী-বিদেশী চারজন ব্যক্তির পরিজনবৃন্দ। (সূত্রঃ ডিএমপি, নিউজ)