আরএমপি নিউজঃ বহুল প্রতীক্ষিত চতুর্থ প্রজন্মের নেটওয়ার্ক তথা ফোরজি আজ সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) চালু হচ্ছে। সন্ধ্যা ৭টায় রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে ফোরজি চালুর অনুমোদন পাওয়া গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক ও টেলিটকের শীর্ষ নির্বাহীদের হাতে লাইসেন্স তুলে দেওয়া হবে। লাইসেন্স পাওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই ফোরজি চালু হবে বলে জানা গেছে। লাইসেন্স হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

লাইসেন্স পাওয়ার পরপরই মোবাইলফোন অপারেটরগুলো ফোরজি সেবা চালু করবে বলে ঘোষণা দিয়েছে। গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী মাইকেল ফোলি আগেই জানিয়েছেন, তারা এক হাতে লাইসেন্স নেবেন, অন্য হাতে ফোরজি চালু করবেন। রবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মাহতাব উদ্দিন আহমেদ গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলেছেন, লাইসেন্স পাওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যে ফোরজি সেবা চালু করবে রবি। বাংলালিংককের প্রধান নির্বাহী এরিক অস গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলেছেন, ফোরজি সেবা চালুর জন্য আমরা আগ্রহের সঙ্গে অপেক্ষা করছি।

রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইলফোন অপারেটরও যেকোনও সময় ফোরজি সেবা চালু করবে বলে জানা গেছে। তবে একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানাচ্ছে, ফোরজি সেবা চালুর জন্য এখনও পুরোপুরি প্রস্তুত নয় টেলিটক। অবকাঠামো তৈরির কাজ এখনও শেষ হয়নি বলে জানা গেছে।

লং টার্ম ইভোল্যুশনকে (এলটিই) চতুর্থ প্রজন্মের নেটওয়ার্ক বা ফোরজি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। এই নেটওয়ার্কে সেকেন্ডে ২ মেগাবাইট থেকে ৪০ মেগাবাইট পর্যন্ত গতিতে তথ্য আদান-প্রদান করা যাবে। ফোরজি হলো ইন্টারনেট গতির ক্ষেত্রে বড় একটি পর্যায়। তাত্ত্বিকভাবে এর ডাউনলোড গতি ১০০ এমবিপিএস থেকে ১ জিবিপিএস পর্যন্ত হতে পারে।

অন্যদিকে যে নেটওয়ার্ক সেকেন্ডে কমপক্ষে ২০০ কিলোবাইট তথ্য স্থানান্তর করতে পারে সেটাই থ্রিজি নেটওয়ার্ক। থ্রিজিতে অনলাইন টিভি, হাই ডেফিনেশন ভিডিও, ভিডিও কলিং, ভিডিও গেমসগুলো ডেভেলপ হয়েছে। উদাহরণ দিয়ে বলা যায়, একজন থ্রিজি ব্যবহারকারী ইন্টারন্টে সেকেন্ডে ১৪ মেগাবাইট গতি পেলে তিনিই ফোরজিতে ১ জিবিপিএস পর্যন্ত গতি পাবেন।

সূত্রঃ ডিএমপি নিউজ