দেশের প্রচলিত আইন, সততা আর নৈতিক মূল্যবোধই হবে পেশাগত দায়িত্ব পালনের পথপ্রদর্শক’- পুলিশ একাডেমীতে প্রধানমন্ত্রী

আমাদের পুলিশ বাহিনীকে সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই। দেশের প্রচলিত আইন, সততা আর নৈতিক মূল্যবোধই হবে পেশাগত দায়িত্ব পালনের পথপ্রদর্শক।

গতকাল ১৪ সেপ্টম্বর সকাল ১১টায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি রাজশাহী সারদায় বিসিএস ৩৪তম ব্যাচের সহকারী পুলিশ সুপারদের সমাপনী কুচকাওয়াজের অভিবাদন গ্রহণ শেষে এমনটাই বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় পুলিশের নবীন কর্মকর্তাদের উদ্দ্যেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি চাই আমাদের নবীন কর্মকর্তারা জীবনের এই গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে আপনারা দেশ-মাতৃকাকে ভালোবেসে আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন। আমাদের মহান নেতা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমান এর নেতৃত্বে স্বাধীনতা অর্জন করেছি। আজকে স্বাধীনতা অর্জন করতে পেরেছি বলেই আমরা সুযোগ পাচ্ছি আমাদের নিজস্ব পুলিশ বাহিনীকে আরো শক্তিশালী হিসেবে গড়ে তুলতে। আমাদের পুলিশ বাহিনীকে দেশের রক্ষক হিসেবে দেখতে চাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে সর্বপ্রথম পুলিশ অস্ত্র হাতে প্রতিরোধ করেছিল। এতে অনেক পুলিশও শহীদ হয়েছিল। সারদা পুলিশ একাডেমিরও বড় ভূমিকা রয়েছে। যারা শহীদ হয়েছেন তাদের আত্মার মাগফেতার কামনা করি। মহান মুক্তিযুদ্ধে পুলিশের বিরাট ভূমিকা রয়েছে বলেই আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর স্বাধীনতা পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিকে সেন্টার অব এক্সিলেন্স হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পুলিশকে আরও উন্নত করার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন- জঙ্গি ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আমরা জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছি। আমাদের পুলিশ ও গোয়েন্দারা অত্যন্ত সুন্দরভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করে দেশ ও জনগণের নিরাপত্তা দিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে আমাদের পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা অত্যন্ত সুন্দরভাবে দায়িত্ব পালন করছে সেজন্য তাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজে যোগদান করতে আজ বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারটি বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমির মাঠে অবতরণ করে। পরে সকাল ১১টার দিকে ৩৪তম ব্যাচের সহকারী পুলিশ সুপারদের সমাপনী কুচকাওয়াজে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, গত ১১ জুন, ২০১৬ যাত্রা শুরু করে ৩৪তম বিসিএস (পুলিশ) ব্যাচের ১৪১ জন সদস্য। যাদের মধ্যে ১১৫ জন পুরুষ ও ২৬ জন নারী শিক্ষানবীশ সহকারী পুলিশ সুপার রয়েছেন।

কুচকাওয়াজে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল এ কে এম শহিদুল হক, বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী সারদার প্রিন্সিপাল (অ্যাডিশনাল আইজিপি) মোহাম্মদ নাজিবুর রহমান এনডিসি সহ সামরিক বেসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ।

সুত্র:  ডিএমপি নিউজ

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *