৬২৪ রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠাল বিজিবি

মিয়ানমারে রাখাইন রাজ্যে সহিংসতার ঘটনায় নাফ নদী পার হয়ে কক্সবাজারের টেকনাফে আসা ৬২৪ রোহিঙ্গাকে আটক করে সে দেশে পাঠিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা।

টেকনাফ-২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল এস এম আরিফুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৭টা পর্যন্ত নাফ নদী পার হয়ে উপজেলার বেশ কয়েকটি পয়েন্ট দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশকালে ৪৭৫ জন রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়েছে। তাদেরকে মানবিক সহযোগিতা দিয়ে স্বস্ব সীমান্ত দিয়ে মিয়ানমারে ফেরত দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, একই দিন ভোরে বিভিন্ন সময়ে টেকনাফে আটক অনুপ্রবেশকারী ১৪১ রোহিঙ্গাকে মানবিক সহযোগিতা দিয়ে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়েছে। অনুপ্রবেশ ঠেকাতে বিজিবি শক্ত অবস্থানে রয়েছে।

এদিকে টেকনাফ থানার ওসি মাইন খান বলেন, কক্সবাজারের-টেকনাফ সড়কে অভিযান চালিয়ে ৮ জন রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়েছে। তাদেরকে ২ বিজিবির মাধ্যমে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়েছে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

গত সপ্তাহে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে ৩০টি পুলিশ ফাঁড়ি ও একটি সেনাঘাঁটিতে সমন্বিত হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে অন্তত ৮৯ জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে ১২ জন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য এবং বাকি ৫৯ জন ‘রোহিঙ্গা মুসলিম বিদ্রোহী’ বলে দেশটির সরকার ও সেনাবাহিনী নিশ্চিত করে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের অক্টোবরে সীমান্তরক্ষীদের চৌকিতে হামলার পরেই রাখাইনের গ্রামে-গ্রামে অভিযান চালায় দেশটির সেনাবাহিনী। এ সময় নির্বিচারে রোহিঙ্গা হত্যা, নির্যাতন, ধর্ষণ ও অগ্নিসংযোগের মত মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটিত হয় বলে জাতিসংঘসহ বিভিন্ন মহল থেকে অভিযোগ উঠে। সেনা অভিযানের মুখে প্রাণ বাঁচাতে গত অক্টোবর থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৮৭ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা। গত কয়েক দশকে ৫ লাখের বেশি রোহিঙ্গা এদেশে আশ্রয় নিয়েছে বলে দাবি সরকারের। তাদের ফেরত নিতে মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে আসছে বাংলাদেশ। তবে এখনো প্রত্যাশিত সাড়া দেয়নি মিয়ানমার।

সুত্র: সমকাল

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *