আমরা এমন কাজ করে যেতে চাই যাতে ভবিষ্যৎ প্রজন্মরা এগিয়ে যেতে পারে

00111রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য জননেতা ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, আমরা এমন কাজ করে যেতে চাই যাতে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মরা এগিয়ে যেতে পারে। আর ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে এমন এক জায়গায় নিয়ে যেতে হবে যাতে কোন মানুষ স্বাধীনতাযুদ্ধ সম্পর্কে ভুল ধারণা করতে না পারে। তাই আমাদের ভেদাভেদ ভুলে এগিয়ে যাবার পথকে প্রশসৱ করতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে রাজশাহী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে মুক্তি-যোদ্ধাদের এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
জননেতা বাদশা বলেন, পাকিসৱান যাতে টিকে না থাকে সেটায় আমাদের কামনা করতে হবে। পাকিসৱান টিকে থাকলে সাম্প্রদায়িক মৌলবাদীরা রস পাবে। তারা সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার করবে। আমরা চাই তারা পৃথিবীর মানচিত্র থেকে মুছে যাক। তিনি বলেন,আমাদের দেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে তুলতে হবে। মুক্তি-যুদ্ধের চেতনা হচ্ছে আমাদের সংবিধান। সংবিধানের কাজ হচ্ছে জনগণের রাষ্ট্রীয় ব্যবস’া প্রতিষ্ঠা করা। সংবিধানের ৪টি মূল নীতিতে লেখা আছে যে, এ রাষ্ট্রের মালিক হচ্ছে দেশের জনগণ। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাসৱবায়নে আমাদের মুক্তি-যুদ্ধের যে সংবিধান রয়েছে তা বাসৱবায়ন প্রয়োজন।
রাজশাহী জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনু-ষ্ঠিত মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনু-ষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংরৰিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য বেগম আকতার জাহান, রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল হান্নান, রাজশাহী ডিআইজি প্রিজন এমএ খুরশীদ আলম,বিশিষ্ট সমাজ সেবি শাহীন আকতার রেনী, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ম.শফিকুল ইসলাম,রাজশাহী পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন ভুইয়া, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক অ্যাড.আব্দুল হাদি, মহানগর কমান্ডার ডা: আব্দুল মান্নান,জেলা কমান্ডার ফরহাদ আলী মিয়া ও মুক্তিযোদ্ধা (বীর উত্তম) আব্দুল খালেক।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের পূর্বে ভদ্রা স্মৃতি অমস্নান থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদৰিণ শেষে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়।
Source:দৈনিক সোনালী সংবাদ

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *