‘উগ্র জাতীয়তাবাদের’ উত্থান নিয়ে সতর্ক করলেন ওবামা

obamaযুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শেষ বিদেশ সফরে গ্রিসে গিয়ে তিনি এ সতর্কতা জানান, খবর বিবিসির।

তিনি বলেন, বর্ণ, ধর্ম বা জাতের বিচারে বিভাজনের যে বিপদ- সে সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্র সজাগ।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিজয়কে ওবামা দেখছেন পরিবর্তনের জন‌্য মার্কিন জনগণের ‘কিছু একটা করার তাড়নার’ ফল হিসেবে, যার ভবিষ‌্যৎ সম্পর্কে তারা নিজেরাও সচেতন নয়।

গ্রিসের রাজধানী এথেন্সে দেশটির প্রধানমন্ত্রী অ্যালেক্সি সিপ্রাসের সঙ্গে বৈঠকের পর এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ওবামা এসব কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনের প্রথম ৩০ মিনিট ওবামা ও সিপ্রাস, উভয়েই যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্পর্কে কথা এড়িয়ে যান। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যেই দুই নেতা ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার প্রভাব নিয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হন।

সতর্কভাবে এসব প্রশ্নের উত্তর দেন ওবামা। এ সময় যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতির দুটি ঐতিহ্যও মেনে চলেন তিনি।বিদেশ সফরে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট সাধারণত তার উত্তরসূরীকে গ্রহণযোগ্য হিসেবে তুলে ধরেন এবং দেশের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের সমালোচনা করে কোনো কথা বলেন না।

তবে ট্রাম্পের জয়ে নিজের বিস্ময়ের কথা ওবামা গোপন করেননি।

তিনি বলেন, “আট বছর ধরে কেউ ক্ষমতায় থাকলে জনগণ স্বাভাবিকভাবেই পরিবর্তন চায়। চাপ যখন বেড়ে যায়, তখন ফলের বিষয়ে নিশ্চিত না হয়েও জনগণ কিছু খোঁজে, পরিবর্তন চায়।”

ওবামা বলেন, অসাম্য, অর্থনৈতিক পঙ্গুত্ব ও সন্তানদের ভবিষ‌্যত নিয়ে জনতার শঙ্কা দূর করতে কাজ করতে হবে এখন।

কীভাবে দেশকে এগিয়ে নেওয়া যায়, সে বিষয়ে ট্রাম্পের কাছে নিজের সর্বোৎকৃষ্ট ধারণাগুলো তুলে ধরেছেন বলে জানান ওবামা।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে সর্বশেষ এই বিদেশ সফরে গ্রিসের পাশাপাশি জার্মানি ও পেরু যাওয়ার কথা রয়েছে ওবামার।
Source: www.bdnews24.com

শেয়ার / প্রিন্ট করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *